• লেইটেস্ট

    কামিং সুন

    মঙ্গলবার     ২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২০  

    সফলতা ও উন্নয়নে দরকার সঠিক তথ্য

    বি আওয়ার ফ্রেন্ডস

    দুবাইয়ে ক্যামব্রিয়ানের শিক্ষকের ডাইনামিক টিচার অ্যাওয়ার্ড লাভ

    দুবাইয়ে ডাইনামিক টিচার অব দ্য ইয়ার, বাংলাদেশ অ্যাওয়ার্ড নিচ্ছেন ক্যামব্রিয়ানের শিক্ষক পারভীন আক্তার। ছবি-ক্যাম্পাস প্লানেট

    এক্সালেন্স ইন এডুকেশন ক্যাটাগরি

    দুবাইয়ে ক্যামব্রিয়ানের শিক্ষকের ডাইনামিক টিচার অ্যাওয়ার্ড লাভ

    প্লানেট ডেস্ক | ২১ জানুয়ারি ২০২০ | ৯:৩৮ পূর্বাহ্ণ

    শিক্ষায় তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহারে দেশের অন্যতম সেরা শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ক্যামব্রিয়ান স্কুল অ্যান্ড কলেজের ডিজিটাল আইকন শিক্ষক পারভীন আক্তার বাংলাদেশি হিসেবে ২০১৯ সালের ডাইনামিক টিচার অ্যাওয়ার্ড লাভ করেছেন। দুবাইয়ে গত ১৪ ডিসেম্বর গ্লোবাল এডুকেশনের আয়োজনে গ্লোবাল এডুকেশন অ্যাওয়ার্ডস-২০১৯ এ অংশগ্রহণ করে এক্সালেন্স ইন টিচার ক্যাটাগরিতে ডাইনামিক টিচার অব দ্য ইয়ার, বাংলাদেশ নির্বাচিত হন তিনি। এর আগে তিনি ২০১৮ সালে জাতীয় পর্যায়ে ডিজিটাল কন্টেন্ট প্রতিযোগিতায় সেরা ১৫’র মধ্যে পঞ্চম স্থান অর্জন করেন (যা মাধ্যমিক পর্যায়ে প্রথম স্থান)। পারভীন আক্তারের এ স্বীকৃতি বাংলাদেশের জন্য নিঃসন্দেহে অত্যন্ত গৌরবের বিষয়। তার এই অর্জন বিশ্ব দরবারে বাংলাদেশের সুনাম ও অর্জন অবশ্যই বাড়িয়ে দেবে।

    আইসিটি বিষয়ে শিক্ষকতায় নিয়োজিত পারভীন আক্তার গত বছরের ফেব্রুয়ারি মাসে শিক্ষক বাতায়ন পোর্টালে সাপ্তাহিক সেরা কন্টেন্ট নির্মাতা হয়েছেন। তিনি ক্যামব্রিয়ান স্কুল অ্যান্ড কলেজে সিনিয়র শিক্ষক হিসেবে কর্মরত আছেন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অনার্স ও স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করে শিক্ষকতাকে পেশা হিসেবে বেছে নেন। এর পর তিনি সি ইন এড, বি,এড ডিগ্রি অর্জনসহ বিভিন্ন শিক্ষামূলক প্রশিক্ষণ গ্রহণ করে নিজেকে একবিংশ শতাব্দীর শিক্ষক হিসেবে তৈরি করে চলেছেন প্রতিনিয়ত।

    গুণী এই শিক্ষকের জন্ম গাজীপুর জেলায়। তার পিতার নাম মোহাম্মদ মিজানুর রহমান ভূইয়া (অবসরপ্রাপ্ত সেনা কর্মকর্তা) এবং মাতার নাম লাইলুন নাহার বেগম (সরকারি চাকরিজীবী)। দুই ভাইবোনের মধ্যে তিনি বড়। স্বামীর নাম মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম। পারিবারিক জীবনে তিনি দুই কন্যা সন্তানের জননী।

    দেশের শিক্ষাব্যবস্থাকে যুগোপযোগী ও আধুনিকায়ন করে গড়ে তোলাই তার লক্ষ্য। এ লক্ষ্যে মানসম্মত শিক্ষাকে সকলের দোরগোড়ায় পৌঁছে দেওয়ার জন্যই শ্রেণিকক্ষে ডিজিটাল প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে শিক্ষাকে বাস্তবভিত্তিক করে তুলতে সর্বাত্মক চেষ্টা করে যাচ্ছেন।

    নিচের লিংকটিও আপনার ভালো লাগতে পারে :

    এসএসসি ও দাখিল পরীক্ষার নতুন রুটিন

    বিটিটি কোর্সে দ্বিতীয় স্থান, পিটিআই প্রশিক্ষণে প্রথম স্থান অর্জনকারী পারভীন একজন মাস্টার ট্রেইনার, গুলশান থানা আইসিটিফোরই অ্যাম্বাসাডর। তিনি ব্রিটিশ কাউন্সিলের ISA থেকে দায়িত্বপ্রাপ্ত শিক্ষক হয়ে ক্যামব্রিয়ান স্কুলে কাজ করছেন এবং অংশ নিচ্ছেন বাংলাদেশ সরকারের a2i এর বিভিন্ন উদ্ভাবনী কার্যক্রমেও।এছাড়া তিনি ফিউচার এডুকেশন, পাঠদান পদ্ধতি, লেসন প্ল্যান ইত্যাদি প্রস্তুত করার বিষয়ে সহকর্মীদের সহায়তার পাশাপাশি দেশের অন্যান্য আগ্রহী শিক্ষকদেরকে সহায়তা করে ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণে ভূমিকা রাখছেন।

    গুণগত এবং একীভূত শিক্ষা এখন বিশ্বায়নের প্রতিযোগিতা। এ লক্ষ্যেই নিজের প্রচেষ্টা ২০৪১ সাল নাগাদ এক উন্নত শিক্ষা কার্যক্রমে রুপান্তরিত হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন পারভীন আক্তার। এজন্য সবার দোয়া ও সহযোগিতা প্রত্যাশা করেন তিনি।

    Comments

    comments

  • আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
    ১০১১১২১৩১৪
    ১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
    ২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
    ২৯  
    জাতিসংঘে শিক্ষানবিশ
    জাতিসংঘে শিক্ষানবিশ