• লেইটেস্ট

    কামিং সুন

    শনিবার     ৬ জুন, ২০২০  

    সফলতা ও উন্নয়নে দরকার সঠিক তথ্য

    বি আওয়ার ফ্রেন্ডস

    নিউইয়র্কে ড্যাফোডিল অ্যালামনাইদের নৌভ্রমণ

    নৌ-ভ্রমণে ড্যাফোডিল পরিবারের সদস্যরা

    নিউইয়র্কে ড্যাফোডিল অ্যালামনাইদের নৌভ্রমণ

    প্লানেট ডেস্ক | ১৯ জুন ২০১৯ | ৪:০২ অপরাহ্ণ

    বাংলাদেশসহ পৃথিবীব্যাপী ছড়িয়ে আছে ড্যাফোডিল পরিবারের ৬০ হাজারের মতো সাবেক শিক্ষার্থী। তাদেরকে হারিয়ে যেতে না দিয়ে, বরং তাদের জন্যে একটি মঞ্চ গড়তে চায় প্রতিষ্ঠানটি। আর তারই অংশ হিসেবে লন্ডনের পর এবার নিউইয়র্কে আয়োজন করা হলো সাবেকদের মিলনমেলার। গত ১৫ জুন অনুষ্ঠিত এ উৎসবে নর্থ আমেরিকাজুড়ে ছড়িয়ে থাকা ড্যাফোডিল পরিবারের দুই শতাধিক সদস্য অংশ নেন। তাদের কেউ পড়েছেন ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটিতে, কেউ পড়েছেন ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল একাডেমি (ডিআইএ) অথবা ড্যাফোডিল ইনস্টিটিউট অব আইটিতে, কেউবা পড়েছেন ড্যাফোডিলের অন্য কোনো শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে। আবার অনেকে এই পরিবারের হয়ে কাজ করেছেন। ড্যাফোডিল গ্রুপের যে ইউনিটেই তারা পড়ে থাকুন না কেন জমকালো এই আয়োজনে শামিল হয়েছিলেন তারা।

    অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন জাতিসংঘে বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি ও রাষ্ট্রদূত মাসুদ বিন মোমেন। ড্যাফোডিল পরিবারের প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়ারম্যান ড. মো. সবুর খান ছাড়াও যোগ দেন প্রতিষ্ঠানটির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ নূরুজ্জামান ও চিফ অপারেটিং অফিসার মোহাম্মদ এমরান হোসেন। প্রধান অতিথি রাষ্ট্রদূত মাসুদ বিন মোমেন তার বক্তব্যে বলেন, দেশের শীর্ষস্থানীয় একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠান ড্যাফোডিলের নর্থ আমেরিকায় এমন একটি আয়োজন সত্যিই প্রশংসার দাবি রাখে। তিনি বলেন, ‘উন্নত দেশগুলোতে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের উন্নয়নে অ্যালামনাইদের কাজে লাগানো হয়। এক অর্থে এতে গোটা দেশটাই উপকৃত হয়। এমন উদ্যোগ নেওয়ায় তিনি ড্যাফোডিল পরিবারকে ধন্যবাদ দেন।’



    মাসুদ বিন মোমেন আরও বলেন, ‘সামনে আসছে ফোর্থ ইন্ডাস্ট্রিয়াল রেভলিউশন (চতুর্থ শিল্প বিপ্লব)। র‌্যাপিডলি ডেভেলপিং টেকনোলজি আসছে। এই চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় ড্যাফোডিল ইউনিভার্সিটি অনেকটাই ভ‚মিকা রাখতে পারে।’

    ড্যাফোডিল পরিবারের চেয়ারম্যান ড. মো. সবুর খান তার বক্তব্যে বলেন, ‘ইমোশন বা আবেগ আমাদের বড় একটি শক্তি। এই ইমোশনকে যদি কাজে লাগানো যায়, তাহলে অনেক কিছুই অর্জন করা সম্ভব।’ বিভক্তি নয়, ঐক্যের আহ্বান জানিয়ে ড. সবুর খান বলেন, ‘আমরা বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে থাকা ড্যাফোডিল পরিবারের সদস্যদের নিয়ে একটি প্ল্যাটফর্ম তৈরি করতে চাই। যার অংশ হিসেবে ড্যাফোডিল অ্যালামনাইরা দেশের উন্নয়নে কাজ করতে পারবে।’

    সবশেষে ধন্যবাদ জানিয়ে বক্তব্য রাখেন প্রতিষ্ঠানটির চিফ অপারেটিং অফিসার মোহাম্মদ এমরান হোসেন। জিয়াউল সুমনের প্রাণবন্ত উপস্থাপনায় অনুষ্ঠানে সাবেকদের অনেকে এ সময় বক্তব্য রাখেন। সাবেকদের এ উৎসবে খাওয়া-দাওয়া ছাড়াও ছিল সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও র‌্যাফেল ড্র।

    ০৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮

    ০৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮

    ০৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮

    ২০ জানুয়ারি ২০১৮

  • আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২
    ১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
    ২০২১২২২৩২৪২৫২৬
    ২৭২৮২৯৩০  
    ডায়মন্ড আজাদের জাতীয় কৃতিত্ব
    ডায়মন্ড আজাদের জাতীয় কৃতিত্ব